1. admin@drstisimana.com : admin :
বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:০১ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজঃ
মুন্সীগঞ্জে পানের দাম কমে যাওয়ায় চাষীদের মাথায় হাত। স্ত্রীর মামলায় সওজের প্রকৌশলী ঝিনাইদহ র‌্যাবের হাতে আটক। কাল থেকে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। রাঙামাটির কাপ্তাই উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হলেন বির্দশন বড়ুয়া। ঐতিহ্যবাহী সংগঠন ‘ব্লাড ডোনার্স সোসাইটি ভালুকা’ এর প্রতিষ্ঠা বার্ষিকিতে ব্যাপক প্রস্তুতি। বুড়িগোয়ালিনী নৌকার প্রার্থী সুন্দরবন প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা। শ্রীপুর প্রেসক্লাবের নির্বাচনে নতুন সভাপতি আঃ লতিফ, সাধারণ সম্পাদক জামাল উদ্দিন। ছেলে কে ভর্তি করাতে এসে ট্রেনে কাটা পড়ে প্রাণ গেল পিতার। মহাদেবপুরে নির্বাচনী আচরণবিধি ও আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক সভা অনুষ্ঠিত। নেত্রকোনায় দাদন ব্যবসায়ী ও অপসাংবাদিকতার বিরুদ্ধে সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত।

করোনাকালীন ভয়াবহ অবস্থার মধ্যও থামছে না এনজিও কর্মীদের দৌরাত্ম্য কিস্তি আদায়!

মোঃআসাদুল্লাহ চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট সময়: বৃহস্পতিবার, ৩ জুন, ২০২১
  • ৭৬ বার পড়া হয়েছে:

করোনাকালীন ভয়াবহ অবস্থা যখন সাধারন জনগনের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে ঠিক তখনও থেমে নেই এনজিও কর্মীদের কিস্তি আদায়।সাম্প্রতিক করোনা পরিস্থিতি অবনতি বলে দফায় দফায় লকডাউন দিচ্ছে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় এতে করে এ জেলার মানুষ হাত-পা গুটিয়ে অনেকটাই অবসরে দিন কাটাচ্ছে। শুধু তাই নয় দৈনন্দিন খেটেখাওয়া শ্রমিক দিনমজুর থেকে শুরু করে নিম্ন আয়ের মানুষ অসহায়ে বেকার হয়ে হাত গুটিয়ে ঘুরেফিরে বাড়িতেই।

এদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জের দ্বিতীয় দফায় আবারও বিশেষ কঠোর লকডাউন দিয়েছে স্থানীয় জন প্রশাসন। এতে করে চাঁপাইনবাবগঞ্জের রাজমিস্ত্রি সহ দৈনন্দিন শ্রমিক কর্মীরা এ জেলার বাইরে যেতে নিষেধাজ্ঞা থাকায় হাত-পা গুটিয়ে বাড়িতে বসে থাকা ছাড়া যেন নেই উপায়। এমন চরম সংকটাপন্ন অবস্থায় গ্রাহকের দ্বারে দ্বারে কিস্তি আদায়ে মরিয়া যেন এনজিওকর্মীরা।

যেখানে করোনার ভয়াবহ মরন থাবায় মানুষ জর্জরিত এবং লকডাউন থাকা অবস্থায় অপ্রয়োজনীয় দোকানপাট সহ অবসরের দিন কাটাচ্ছে চাঁপাইনবাবগঞ্জের দিনমজুররা।এমন দুঃসময়ে যেন হানা দিচ্ছে কিস্তি আদায়ে এনজিও কর্মীরা। এতে করে চরম বিপাকে পড়েছে গ্রাহকরা।

 

এদিকে এনজিও কর্মীরা তাদের প্রতিষ্ঠানের নামের ব্যাগ পাস বইসহ পরিচয় জনসম্মুখে গোপন রেখেই গ্রাহক পর্যায়ে ছুটছে যেন কিস্তি আদায়ে। তবে সাধারন ও লোকাল এনজিও ব্যবস্থাপকদের সাথে কথা বললে তারা জানায় করোনার অসময়ে ঋণ কার্যক্রম সম্পূর্ণ বন্ধ রয়েছে।তাছাড়া এনজিও প্রতিষ্ঠানগুলো তালাবদ্ধ অবস্থায় দেখা যায়,তবে মাঠ পর্যায়ে এনজিও কর্মীদের উপস্থিতি লক্ষ করা যায়।

এদিকে বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক অর্পিত দায়িত্ব গ্রাম উন্নয়নের কাজটি সম্পূর্ণ ছেড়ে দেই সেবামূলক এনজিও প্রতিষ্ঠানদের হাতে। তবে প্রকৃতপক্ষে গ্রামন্নয়নের তেমন লক্ষ করা যায় না। তাছাড়া চলমান করোনা প্রাদুর্ভাবে এগিয়ে আসেনি সকল সেবামূলক এনজিও প্রতিষ্ঠানগুলো।এবং করোনাকালীন সময়ে তেমনও চোখে পড়েনি হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও মাক্স বিতরণ সহ স্বাস্থ্যবিধির কোন লিফলেট প্রচার ব্যবস্থায়।এনজিও প্রতিষ্ঠানগুলো সাধারণ জনগণকে বিপদে ফেলে গলায় আকুর বাঁধিয়ে দিয়ে মহামারী বিপদের মধ্যেও থামছে না তবুও এদের কিস্তি আদায়।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
আমাদের এখান থেকে কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ এবং আমাদের এখানে প্রচারিত সংবাদ সম্পূর্ণ আমাদের প্রতিনিধিদের কাছ থেকে পাওয়া। কোন প্রকার মিথ্যা নিউজ হলে তার জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে না সম্পূর্ণ দায়ী থাকিবে নিউজ পেরন কারী সাংবাদিক। (মানবিক দৃষ্টি সীমানা ফাউন্ডেশন এর একটি প্রতিষ্ঠান) 
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: FT It