1. admin@drstisimana.com : admin :
শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১০:৩৪ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজঃ
কপিলমুনি প্রেসক্লাবে পবিত্র ঈদ-ই মিলাদুন্নবী ও প্রতিষ্ঠাতা শেখ সেফারুল ইসলামের রুহের মাগফেরাত কামনা। ঢাকা-গাজীপুর সড়ক পথে আসছে যুগান্তকারী পরিবর্তন। জনপ্রিয়তার শীর্ষে সাবেক চেয়ারম্যান, রুহুল কাদের মানিক। দলিয় পদ হারাচ্ছেন গাজীপুর সিটি মেয়র জাহাঙ্গীর। শ্রীনগর বাঘড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা। পাইকগাছার রাড়ুলী ডাকাতি মামলার আসামী পুলিশের হাতে আটক। সিরাজগঞ্জে কাজিপুরে হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের স্মারকলিপি প্রদান। অভাবের সাথে যুদ্ধ করে ক্লান্ত, স্ট্যাটাস দিয়ে বিজিবি সদস্যের আত্মহত্যা। ঝিনাইদহে অস্ত্র ও ফেন্সিডিলসহ গ্রেফতার ০১ জন। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পাখি উদ্ধার করলো শিবগঞ্জ উপজেলা ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।

জগন্নাথপুরে বিদ্যুৎ প্রোকৌশলী আজাদের সাংবাদিকদের সাথে অশোভন আচরণ তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

সুনামগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট সময়: মঙ্গলবার, ১৫ জুন, ২০২১
  • ৮৭ বার পড়া হয়েছে:

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলা বিদ্যুৎ প্রকৌশলী আজিজুল ইসলাম আজাদ- জগন্নাথপুর রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি- জাতীয় দৈনিক সকালের সময় জগন্নাথপুর উপজেলা প্রতিনিধি ও আজকের আলো অনলাইন নিউজ পোর্টাল সম্পাদক -আমিনুর রহমান জিলুর সাথে অশোভন আচরণ করেছেন। জানা যায় ১৫ জুন মঙ্গলবার সকালে সাংবাদিক আমিনুর রহমান জিলু তার চাচাতো ভাই যুক্তরাজ্য প্রবাসী সেফুল আহমেদ নামে বকেয়া বিদ্যুৎ বিলের একটি কপি নিয়ে জগন্নাথপুর উপজেলা বিদ্যুৎ প্রকৌশলী আজিজুল ইসলাম আজাদের কাছে যান। উক্ত বিলের কপিতে ১৮,০০০ আঠারো হাজার টাকা বকেয়া থাকায় সাংবাদিক আমিনুর রহমান জিলু তাকে অনুরোধ করেন ৭০০০ সাত হাজার টাকা এখন জমা দিয়ে দয়া করে আমাকে ১ মাসের সময় দিন। এক মাসের মধ্যেই আপনাদের বাকি টাকা পরিশোধ করা হবে। জবাবে প্রোকৌশলী আজিজুল ইসলাম আজাদ বলেন- “এটাকি এতিমখানা নাকি” আপনি চাইলেন আর আমি দিয়ে দিলাম। সম্পূর্ণ টাকা না আনতে না পারলে হবেনা! বেরিয়ে যান এখান থেকে। এনিয়ে সাংবাদিক আমিনুর রহমান জিলু অনেক অনুনয় বিণয় করে অনুরোধ করলে তিনি আরো উত্তেজিত হয়ে বলেন। বলছিনা বেরিয়ে যেতে এতো কথা বলেন কেন। এসময় একই অফিসের আরেক ষ্টাফকে ডেকে বলেন “একে বের করে দিন” উপায়ন্তর না দেখে সাংবাদিক আমিনুর রহমান জিলু সেখান থেকে চলে আসেন। ঘণ্টা খানিক পর সহকর্মী জগন্নাথপুর রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক চ্যানেল এস প্রতিনিধি আলী হোসেন খাঁনকে নিয়ে আবার তার অফিসে গেলে, প্রকৌশলী আজিজুল হক আজাদ তেলে বেগুনে রেগে উঠেন, কর্কট কণ্ঠে বলেন- একেতো বের করে দিয়েছি! আপনি নিয়ে আসছেন কেন? এসময় সেখানে আরেক প্রকৌশলী কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। পরে এ ব্যাপারে আলী হোসেন খাঁন ও প্রকৌশলী কর্মকর্তা হাবিব- প্রকৌশলী আজিজুল ইসলাম আজাদকে অনুরোধ করলে তিনি রাজি হয়ে ৭০০০ সাত হাজার টাকা বিলের কপিতে লিখে দিয়ে ব্যাংকে জমা দিতে বলেন। এব্যাপারে সাংবাদিক আমিনুর রহমান জিলু বলেন- ৭০০০ টাকা জমা নিতে তিনি রাজিই যদি হলেন, তবে আমাকে এই অপমান কেনো করলেন। তিনি আরো বলেন প্রকৌশলী আজিজুল ইসলাম আজাদের ব্যবহার অত্যন্ত নিকৃষ্ট প্রকৃতির! একজন প্রকৌশলীর ব্যবহার এমন হতে পারেনা। বিদ্যুৎ বিভাগের মহাপরিচালকের দৃষ্টি আকর্ষণ করে তিনি বলেন- আমি যদি তার সাথে কোনো খারাপ আচরণ করে থাকি তবে তার অফিসের সিসি ক্যামেরায় নিশ্চয়ই সেটা রেকর্ড হয়ে আছে, আপনারা সেটা খুঁজে দেখতে পারেন। যদি তাতে আমরা কোনো দোষ ধরা পরে, তবে আমার বিরুদ্ধে অবশ্যই ব্যবস্থা নিন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
আমাদের এখান থেকে কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ এবং আমাদের এখানে প্রচারিত সংবাদ সম্পূর্ণ আমাদের প্রতিনিধিদের কাছ থেকে পাওয়া। কোন প্রকার মিথ্যা নিউজ হলে তার জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে না সম্পূর্ণ দায়ী থাকিবে নিউজ পেরন কারী সাংবাদিক। (মানবিক দৃষ্টি সীমানা ফাউন্ডেশন এর একটি প্রতিষ্ঠান) 
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: FT It