1. admin@drstisimana.com : admin :
রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ১২:১৪ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজঃ
কপিলমুনি প্রেসক্লাবে পবিত্র ঈদ-ই মিলাদুন্নবী ও প্রতিষ্ঠাতা শেখ সেফারুল ইসলামের রুহের মাগফেরাত কামনা। ঢাকা-গাজীপুর সড়ক পথে আসছে যুগান্তকারী পরিবর্তন। জনপ্রিয়তার শীর্ষে সাবেক চেয়ারম্যান, রুহুল কাদের মানিক। দলিয় পদ হারাচ্ছেন গাজীপুর সিটি মেয়র জাহাঙ্গীর। শ্রীনগর বাঘড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা। পাইকগাছার রাড়ুলী ডাকাতি মামলার আসামী পুলিশের হাতে আটক। সিরাজগঞ্জে কাজিপুরে হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের স্মারকলিপি প্রদান। অভাবের সাথে যুদ্ধ করে ক্লান্ত, স্ট্যাটাস দিয়ে বিজিবি সদস্যের আত্মহত্যা। ঝিনাইদহে অস্ত্র ও ফেন্সিডিলসহ গ্রেফতার ০১ জন। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পাখি উদ্ধার করলো শিবগঞ্জ উপজেলা ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।

কুতুবদিয়ার বেড়িবাঁধের দাবিতে গান গেয়ে ভাইরাল, আজম কলোনীর কন্ঠ শিল্পী শাহিন।

স্টাফ রিপোর্টারঃ
  • আপডেট সময়: বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন, ২০২১
  • ৭৯ বার পড়া হয়েছে:

সাম্প্রতিক সময়ে ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয় কুতুবদিয়ার বেড়িবাঁধ। তারিই ধারাবাহিকতায় “”হোক প্রতিবাদ”” একটি গান গেয়ে কুতুবদিয়ার আপামর জনসাধারণের মাঝে স্থান করে নিয়েছেন সেই কন্ঠ শিল্পী শাহীন।কুতুবদিয়ার বেড়ীবাঁধের দাবীতে গাওয়া এ গানটি সামজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক ভাবে ভাইরাল হয়েছে। ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের ফলে কুতুবদিয়া বেড়িবাঁধের ব্যাপক ক্ষতি হয়, এসব চিত্র তুলে ধরে কুতুবদিয়ার শিল্পী মোঃ শাহিন আবরার গানটি গেয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঝড় তুলেছেন।

এলাকার মানুষের দূর্দশা তোলে ধরার পাশাপাশি গানের মাধ্যমেই দৃষ্টি আকর্ষনের চেষ্টা, করেছেন এই শিল্পী শাহিন। কক্সবাজারের কুতুবদিয়ার ৫নং বড়ঘোপ ৭নং আজম কলোনীতেই তার জন্ম।জানা যায়,ছোট বেলা থেকেই তার বাবা মারা যায়,তার বড় ভাই রুবেল, তাকে বাবার আদরে যত্ন করে তুলেন। তার মহৎ উদ্যেশ্য ছিলো শিল্পী হওয়ার, ছোট বেলা থেকে তার বড় ভাই রুবেল তাকে একটি হারমনিয়াম কিনে দেয়, তখন থেকে সে আস্তে আস্তে গান গাওয়া শুরু করে। জানা যায়, কক্সবাজারের কুতুবদিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়েও সে গান গাইতেন, কুতুবদিয়া শিল্পকলা একাডেমিতেও তার ব্যাপক শুনাম রয়েছে। পরে চট্রগ্রাম সিটি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে, বাংলাতে অনার্স মাস্টার্স পাশ করে সে।

জানা যায়, সে চট্রগ্রামের সিটি বিশব্বিদ্যালয় কলেজের হয়েও চট্রগ্রামে অনেক অনেক গান করতেন, এমন কি কলেজের অনুষ্ঠান থেকে শুরু করে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে গান গেয়ে আসতেন তিনি।সাগরবুকের দ্বীপ কুতুবদিয়ার মানুষ প্রকৃতির নানান দূর্যোগের শিকার, আর গান দিয়েই মানুষের কষ্টটা তোলে ধরেছেন তিনি। সাবলীল কথা আর সুর সাথে দূর্ভোগের চিত্র সব মিলিয়ে গানটি বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।তার বড় ভাই রুবেল, জানান,আমার আর কোন আশা নেই, ছোট বেলায় আমার বাবা মারা যাবার পর থেকে আমার ছোট ভাই শাহিনকে প্রতিষ্ঠিত করতে আমরা চট্রগ্রামে চলে আসি, আমরা অনেক সাধানার পর আজকে যে আমার ভাই, আমার জন্মভুমির জন্য গান করে এলাকার কথা বলেছেন, আজ আমরা অনেক অনেক খুশি, আমার মা’ সহ আমরা সবাই উনার জন্য দোয়া করি, আল্লাহ যেন উনাকে সুস্থতা দান করে আমিন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
আমাদের এখান থেকে কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ এবং আমাদের এখানে প্রচারিত সংবাদ সম্পূর্ণ আমাদের প্রতিনিধিদের কাছ থেকে পাওয়া। কোন প্রকার মিথ্যা নিউজ হলে তার জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে না সম্পূর্ণ দায়ী থাকিবে নিউজ পেরন কারী সাংবাদিক। (মানবিক দৃষ্টি সীমানা ফাউন্ডেশন এর একটি প্রতিষ্ঠান) 
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: FT It