1. admin@drstisimana.com : admin :
রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৪৫ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজঃ
বাইশারীতে নৌকার মাঝি আলমকে কয়েক শত গাড়ির বহর নিয়ে বরন। শ্রীনগরে কোলাপাড়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি পথ পেল নূরনবী অন্তু। নাইক্ষ্যংছড়ির ২ ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে ৬ মেম্বার পদে ৬৮ জন প্রার্থী ফরম নিলেন। কথাসাহিত্যিক খালেকদাদ চৌধুরীর ৩৬তম প্রয়াণ দিবসে আলোচনা সভা। ফাইতংয়ে জনতার রিক্ত সিক্ত ভালবাসায় নৌকা প্রতীকে শুভযাত্রা ও পথসভা ওমর ফারুক। ফোক গানের জনপ্রিয় লেখক জাকির মাস্টার সপরিবারে সিলেট। কুচাই পট্টি ইউনিয়নে বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কাজের উদ্বোধন। নওগাঁয় সড়ক দূর্ঘটনায় ভ্যান চালক নিহত, একজন আহত। জলবায়ু পরিবর্তন বাস্তচ্যুতি এবং অভিবাসন বিষয়ক উপজেলা পর্যায়ে সংলাপ। ঝিনাইদহে ভাতিজার লাঠির আঘাতে চাচা খুন।

ফরিদপুরে চেয়ারম্যান ও মেম্বারের বিরুদ্ধে ভোয়া মাতৃত্বকালীন কার্ডসহ বিভিন্ন কাজে অনিয়মের অভিযোগ।

ফরিদপুর প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট সময়: শনিবার, ৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৬২৪ বার পড়া হয়েছে:

ফরিদপুর জেলার চরভদ্রশন থানা ১নং চর হরিরামপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ আমির হোসেন খাঁন ও ৮ নং ওয়ার্ড ইস্তার মোল্যার ডাঙ্গী গ্রামের সাবেক মেম্বার সেক আবদুল হাই এর স্ত্রী বর্তমান ৭,৮,৯ নং ওয়ার্ডের মহিলা মেম্বার লিপি আক্তারের বিরুদ্ধে ভোয়া মাতৃত্বকালীন কার্ডের তালিকা করার অভিযোগ পাওয়া গিয়েছে।এলাকাবাসীর সুত্রে জানা যায়, বর্তমান মহিলা মেম্বার লিপি আক্তারের মেয়ে আইভী আক্তার নামে এই কার্ডের তালিকা করা হয়, অথচ আইভী আক্তার তার স্বামী মোঃ রানা খাঁনের সাথে বিগত ৩ বছর আগে আইভী আক্তারের ছাড়াছাড়ি হয়, তাহলে কি ভাবে তার নামে মাতৃত্বকালীন ভাতার তালিকা করা হয়। আর কি ভাবে চেয়ারম্যান ও মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তারা এই বিষয়ে কোন কিছু তদন্ত না করে এই তালিকায় সাক্ষর করেন। বিগত দিনে এই ধরনের অনেক দুর্নীতির সাথে তারা জড়িত।

৩০ টাকা ১০ টাকা ধরে ভিজিটিং কার্ডকে কেন্দ্র করে ও অনিয়ম দেখা যায়, যেখানে তিনটি ওয়ার্ড মিলে যে পরিমান সরকারী অনুদান আসে দুইটি ওয়ার্ডে সামান্য পরিমান অনুদান দিয়ে তারা তাদের নিজ ওয়ার্ডে বেশি পরিমান রেখে অন্য এলাকার ভোটার নিজ এলাকায় তৈরী করে তাদের নামে অনুদানের কার্ডগুলোর তালিকা তৈরী করে নিজে আত্নাসার্থ করে থাকেন বলে অভিযোগ পাওয়া যায়।
এই রকমের আরো অনেক দুর্নীতির সাথে তারা জড়িত সঠিক ভাবে তদন্ত করলে আরো অজানা তথ্যা বের হয়ে আসবে বলে তারা অভিমত ব্যাক্ত করেন। এই বিষয়ে মহিলা মেম্বার লিপি আক্তারের সাথে একাদিক বার তার মুঠো ফোনে যোগাযোগ করার পরে ও কথা বলার সম্ভাব হয়নি।চেয়ারম্যান মোঃ আমির হোসেন খাঁনের সাথে তার মুঠো ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, এই বিষয়টি সত্যে আমি ঘটনাটি শুনার পরে তালিকা থেকে তার নাম বাদ দিয়ে দিয়েছি।

তিনি এক সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরের বলেন, এই তালিকাটি আমি নিজে তদন্ত না করে আমি আমার মেম্বার উপরে বিশ্বাস করে সই করেছি, আমার আরো বেশি সর্তক হওয়া উচিত ছিল পরবর্তীতে এমন কাজ যেন না হয় আমি সেই দিকে খেয়াল রাখবো। অন্য যে বিয়ষে আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ করা দেয়া হয়েছে, সেটা আমি সাথে সাথে সমাধান করার চেষ্টা করেছি, তাছাড়া জনগন নিয়ে কাজ করতে গেলে ভুল তো একটু হবেই।উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা বলেন,এই তালিকা গুলো চেয়ারম্যান ও মেম্বার গোন করে থাকেন, সময়ের সল্পতার কারনে অনেক সময় এই কাজ গুলো তাড়াতাড়ি করতে হয়, সেই ক্ষেত্রে আমরা চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের উপর বিশ্বাস করতে হয়, আমার কাছে যখন এই বিষয়টির ব্যাপারে অভিযোগ আসে, আমি সাথে সাথে কার্ডের সব কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়েছি।

এলাকাবাসী আরো জানায়, শুধু এই কার্ড না আরো অনেক অনেক বিষয়ের সাথে বর্তমান চেয়ারম্যান ও মেম্বার জড়িত আমরা সরল সোজা,অশিক্ষিত মানুষ আমাদের যেমন তারা বোঝাই আমরা তেমনি বুঝি।, প্রতিবন্ধী ভাতা,বিধবা ভাতা, বয়স্ক ভাতা, সল্পো মূল ভিজিটিংকার্ড, রাস্তাঘাট মেরামেত কাজ, রাস্তার পাশে থাকা বড় বড় গাছ কাটা, থেকে শুরু করে নানা ধরনের অপকর্মের সাথে এই চেয়ারম্যান ও মেম্বার জড়িত রয়েছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
আমাদের এখান থেকে কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ এবং আমাদের এখানে প্রচারিত সংবাদ সম্পূর্ণ আমাদের প্রতিনিধিদের কাছ থেকে পাওয়া। কোন প্রকার মিথ্যা নিউজ হলে তার জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে না সম্পূর্ণ দায়ী থাকিবে নিউজ পেরন কারী সাংবাদিক। (মানবিক দৃষ্টি সীমানা ফাউন্ডেশন এর একটি প্রতিষ্ঠান) 
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: FT It